হরপ্পা সভ্যতার আবিষ্কার

আবিষ্কার:-
         1875 সালে প্রত্নতত্ত্ববিদ আলেকজান্ডার কানিংহাম উত্তর-পূর্ব ভারতের অজ্ঞাত পরিচয় এবং অপরিচিত লিপি সম্মনিত একটি শিলমোহরের সন্ধান পান ।কিন্তু এই শীলমোহরের পাঠোদ্বার করা যায়নি ।পরে   1921 – 24 খ্রিস্টাব্দের মধ্যে বিখ্যাত প্রত্নতত্ত্ববিদ রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায় ,এবং দয়ারাম সাহানি ,পশ্চিম পাঞ্জাবে অন্তর্গত সুলতান জেলার হরপ্পা এবং সিন্ধু দেশের অন্তর্গত  লারকানা জেলার মহেঞ্জোদারো  প্রাচীন যুগের ধ্বংসাবশেষ সন্ধান পান। এছাড়া কাশীনাথ দীক্ষিত ননীগোপাল মজুমদার , স্যার মাটির লুথার ব্যক্তির নাম জড়িয়ে আছে।
         সিন্ধু নদের তীরে প্রথম সভ্যতা আবিষ্কৃত হয় বলে পূর্বে এই সভ্যতা সিন্ধুসভ্যতা বলা হয়। সাম্প্রতিক সিন্ধুতট অতিক্রম করে ভারত ও ভারতের বাইরে বিস্তীর্ণ অঞ্চলের সভ্যতার প্রায় 250টি কেন্দ্র আবিষ্কৃত হয়েছে। তাছাড়া মহেঞ্জোদারো তুলনায় হরপ্পা অনেক প্রাচীন নিদর্শন হিসেবে আবিষ্কৃত হয়েছে এবং মহেঞ্জোদারো অপেক্ষা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ ।এসব কারণে প্রত্নতত্ত্ববিদ এদের কাছে এই সভ্যতা ‘হরপ্পা সভ্যতা’ নামে পরিচিত।

Leave a Comment

Translate »